আজ সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৩৭ অপরাহ্ন

Logo
সাংবাদিক রাহাত খান আর নেই,জাতীয় প্রেসক্লাবে জানাযা

সাংবাদিক রাহাত খান আর নেই,জাতীয় প্রেসক্লাবে জানাযা

অনলাইন ডেস্ক:

কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক রাহাত খান মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি ডায়বেটিকসসহ বিভিন্ন বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। এ দিকে দেশের খ্যাতিমান কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক রাহাত খানের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে জানাজা শেষে তার মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরিবারের সদস্য, গণমাধ্যম কর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ জানাজায় অংশ নেন।

জানাজা শেষে রাহাত খানের মরদেহ তার সর্বশেষ কর্মস্থল ‘প্রতিদিনের সংবাদ’ কার্যালয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য নেয়া হয়। বাদ জোহর মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হবে। এর আগে শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় রাজধানীর ইস্কাটনে নিজ বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন সাংবাদিক এবং আবিষ্কার প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী দেলোয়ার হাসান।

এর আগে গত ২০ জুলাই রাহাত খানকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগের দিন বাসায় খাট থেকে নামতে গিয়ে কোমরে ব্যথা পান তিনি। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শে এক্সরে করা হলে তার পাঁজরে গভীর ক্ষত ধরা পড়ে।
এর পাশাপাশি তার শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে জরুরি ভিত্তিতে তাকে বারডেম হাসপাতালের আইসিউতে ভর্তি করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগ, কিডনি, ডায়বেটিসসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি। এ কারণে তার চিকিৎসার প্রক্রিয়া জটিল হয়ে পড়ায় সার্জারি করা যাচ্ছিল না বলে বাসাতেই অবস্থান করছিলেন তিনি।

রাহাত খান বাংলাদেশের একজন খ্যাতিমান কথাশিল্পী। ১৯৪০ সালের ১৯ ডিসেম্বর কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার পূর্ব জাওয়ার গ্রামের খান পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন। ছোটগল্প ও উপন্যাস উভয় শাখাতেই তার অবদান উল্লেখযোগ্য। সাংবাদিক হিসেবেও রাহাত খানের অবদান উল্লেখযোগ্য।
দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় তিনি ষাটের দশক থেকে কর্মরত। তিনি দৈনিক ইত্তেফাকের সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেছেন। তিনি ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত হন। বিখ্যাত সিরিজ মাসুদ রানার রাহাত খান চরিত্রটি তার অনুসরণেই তৈরি করা।

তিনি বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৩), সুহৃদ সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৫), সুফী মোতাহার হোসেন পুরস্কার (১৯৭৯), আবুল মনসুর আহমদ স্মৃতি পুরস্কার (১৯৮০), হুমায়ুন কাদির স্মৃতি পুরস্কার (১৯৮২), ত্রয়ী সাহিত্য পুরস্কার (১৯৮৮) এবং দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় একুশে পদক (১৯৯৬) পেয়েছেন।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact