আজ মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৩৭ অপরাহ্ন

Logo
ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু করবে ডেমোক্রেটরা

ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু করবে ডেমোক্রেটরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীকে আঘাতে উসকানির জন্য ট্রাম্পের অপসারণ চাইছেন ডেমোক্রেটরা। কিছু রিপাবলিকান নেতাও এ দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। যদিও ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স এখনো এতে সম্মতি দেননি। স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, মাইক পেন্স রাজি না হলেও পরিষদ ডনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রক্রিয়া শুরু করবে। সিএনএনের রিপোর্টে বলা হয়েছে, পেলোসি বলেন, হাউস সবার সম্মতিতে ট্রাম্পকে অপসারণের প্রস্তাব পাস করার চেষ্টা করবে। সবার সম্মতিতে ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাব পাস না হলে ও রিপাবলিকানদের বাধার মুখে পড়লে এটি আবার ভোটাভুটির জন্য আনা হবে। পেন্সকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রস্তাবের ওপর প্রতিক্রিয়া জানাতে হবে।

এমনটা না হলে হাউস প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসন করার প্রক্রিয়া শুরু করবে।
বিবিসি’র রিপোর্টে বলা হয়েছে, শুধু ডেমোক্রেট নয় এমনকি রিপাবলিকানদের অনেকেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সেদিন সমর্থকদের উস্কে দেয়ার অভিযোগ করছেন। রিপাবলিকান সিনেটর প্যাট টুমি মি. ট্রাম্পের পদত্যাগ দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, “আমার মনে হয় দেশের জন্য এখন সবচেয়ে ভাল হবে যদি ট্রাম্প পদত্যাগ করে দ্রুত বিদায় নেন”
“আমি জানি তা হয়ত হবে না। কিন্তু এটা হলেই ভাল হতো।”
এর আগে আলাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর লিসা মারকাউস্কি প্রথম মি. ট্রাম্পের পদত্যাগ দাবি করেছিলেন।
নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন স্যাসেও ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে কথা বলেছেন। আরও এক রিপাবলিকান, ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক গভর্নর আর্নল্ড সোয়ার্জিনেগার ডনাল্ড ট্রাম্পকে ‘সবচেয়ে জঘন্য প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।
তবে রিপাবলিকানদের কেউ তার বিরুদ্ধে ভোট দেবেন এমন ইঙ্গিত দেননি। ডনাল্ড ট্রাম্প তার প্রিয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে প্রকাশ্যে কোন মন্তব্য করেননি। হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে অভিশংসনের উদ্যোগকে রাজনৈতিক চাল বলে উল্লেখ করে বলা হয়েছে, এতে দেশের মধ্যে বিভাজন আরও বৃদ্ধি পাবে।
ওদিকে দাঙ্গার দিন কয়েকজন পুলিশের বিরুদ্ধে সাদা পোশাকে সেদিনকার র্যালিতে অংশ নেয়ার অভিযোগ ওঠার পর তা তদন্ত শুরু হয়েছে। তাদেরকে কাজ থেকে বিরত রাখা হয়েছে।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact