আজ শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:৪০ অপরাহ্ন

Logo
লক্ষ্মীপুরে জেলা প্রশাসনের ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ, ভ্রাম্যমান গাড়ি যাচ্ছে গ্রাম-গঞ্জে

লক্ষ্মীপুরে জেলা প্রশাসনের ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ, ভ্রাম্যমান গাড়ি যাচ্ছে গ্রাম-গঞ্জে

নিজস্ব প্রতিবেদক,লক্ষ্মীপুর:

সাধারন মানুষের দুর্ভোগ কমাতে ও জনগনের দৌড়গড়ায় করোনা ভ্যাকসিন রেজিস্টেশন কার্যক্রম পৌঁছে দিতে ব্যাতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। ভ্যাকসিনের রেজিস্ট্রশন সম্পন্ন করতে গ্রাম-গঞ্জে যাচ্ছে ভ্রাম্যমান একাধিক গাড়ি। এতে করে সাধারন মানুষ রেজিস্ট্রশন করে টিকা নিতে সহজ হবে। কমবে দুর্ভোগসহ নানা হয়রানী।

প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারন মানুষ। তবে জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, দুর্ভোগ কমাতে ও সহজে যেন মানুষ করোনা ভ্যাকসিন নিতে পারে। সে জন্য এমন উদ্যোগ। এটি অব্যাহত রাখার ঘোষনা দেন তারা।

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা ভ্যাকসিন রেজিস্ট্রশন সম্পন্ন করতে ভ্রাম্যমান একাধিক গাড়ি চালু করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সদরসহ জেলার ৫টি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাবে এসব ভ্রাম্যমান গাড়ি। বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এ ভ্রাম্যমান গাড়ির উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডা: আবদুল গফ্ফার ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুমসহ জেলা-উপজেলা প্রশাসন এবং স্বাস্থ্যবিভাগের কর্মকর্তারা। ভ্রাম্যমান এসব গাড়ি জেলার প্রতিটি হাট-বাজারসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে ৪০ চল্লিশ উদ্বে যে কেউ রেজিস্টেশন করে করোনা টিকা নিতে পারবে।

৭ ফেব্রƒয়ারী থেকে সদর হাসপাতালসহ ৪টি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্ের রেজিস্টশন করে করোন ভ্যাকসিন টিকাদান কর্মসুচি চলছে। এছাড়া জেলা কারাগারে কারাবন্দিদের টিকা প্রয়োগ শুরু করা হয়েছে। প্রথমে বিভিন্ন মেয়াদের সাজাপ্রাপ্ত ও বিচারধীন মামলার কারাবন্দিদের টিকা দেয়া হচ্ছে। এরপর পর্যায়ক্রমে অন্য আসামীদেরও টিকা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিভাগ।

প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারন মানুষ। তাদের দাবী, এ ভ্রাম্যমান গাড়ির মাধ্যমে সমাজের খেটে খাওয়া মানুষগুলো রেজিস্টেশন করে টিকা নিতে সহজ হবে বলে আশা করেন তারা। এটি একটি ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ বলেও দাবী করেন স্থানীয়রা।

জেলা সিভিল সার্জন ডা: আবদুল গফ্ফার জানিয়েছেন, প্রথম পর্যায়ে ৩০হাজার মানুষকে টিকা দেয়া হবে। ৫২টি বুথের মাধ্যমে প্রতিদিন টিকাদান কর্মসুচি চলছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের সুবিধার জন্য জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা রেজিস্ট্রশন করতে ভ্রাম্যমান গাড়ি চালু করা হয়। সাধারন মানুষের আগ্রহ বাড়াতে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এটি একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ।

জেলা প্রশাসক আনোয়ার হোছাইন আকন্দ জানান, সাধারন মানুষের দুর্ভোগ কমাতে ও করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রম নিশ্চিত করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে করে পথচারী,গাড়ি চালক,খেটে খাওয়া মানুষসহ সকল পেশার মানুষ যেন সহজে রেজিস্টেশন করে করোনা টিকা নিতে পারে। সেজন্য ভ্রাম্যমান একাধিক গাড়ি চালু করা হয়েছে। যতদিন পর্যন্ত করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলবে,ততদিন পর্যন্ত ভ্রাম্যমান গাড়ি চালু রাখার ঘোষনা দেন তিনি।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact