আজ মঙ্গলবার, ০৪ মে ২০২১, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে জমে উঠেছে ঈদ বাজার,স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা ক্রেতা-বিক্রেতা লক্ষ্মীপুরে থানার ওসির কাছে মাদক ব্যবসা না করার প্রতিশ্রুতি,ফুল দিয়ে বরণ লক্ষ্মীপুরে আশ্রয়নকেন্দ্র অগ্নিকান্ডে পুড়ে গেছে ৮টি ঘর লক্ষ্মীপুরে সড়ক দূর্ঘটনা যুবলীগ নেতা নিহত,আহত-এক স্বাস্থ্যবিধি মনে চলুন,সরকার আপনাদের পাশে আছে: প্রধানমন্ত্রী লক্ষ্মীপুরে বাস চালুর দাবিতে বিক্ষোভ লক্ষ্মীপুরে চিরনিদ্রায় সাংবাদিক ফয়সল নিষেধাজ্ঞার দুই মাস পর মেঘনায় মাছ ধরতে গিয়ে খালি হাতে ফিরছে জেলেরা লক্ষ্মীপুরে হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদ উপহার দিলেন পৌর মেয়র লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মেয়র প্রার্থী মাসুম ভূঁইয়ার ইফতার
লক্ষ্মীপুরে সন্তান আমপাড়ার অভিযোগে মাকে নির্যাতন, তবে নারী বলছে…….!

লক্ষ্মীপুরে সন্তান আমপাড়ার অভিযোগে মাকে নির্যাতন, তবে নারী বলছে…….!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
লক্ষ্মীপুরে রামগতির চরআফজাল এলাকায় সন্তান আমপাড়ার অভিযোগে মা নাছিমা আক্তারের ওপর বর্বর নির্যাতন চালিয়েছে প্রতিবেশী আবদুল ও তার সহযোগিরা। রোববার সকালে ওই নারীকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় রামগতি থানায় আবদুলসহ তিনজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে ওই নারীর বসতঘরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার দুপুরে রামগতির চরআফজাল এলাকায় প্রতিবেশী আবদুলদের গাছ থেকে নাছিমা আক্তারের ১০ বছরের শিশু কিছু আম পাড়ে। এর জের ধরে নাছিমা আক্তারকে বেদম মারধর করে আবদুলসহ অন্যরা। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নাছিমা আক্তারকে প্রথমে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্র ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় রোববার সকালে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গুরুতর আহত নাছিমা আক্তার একই এলাকার সেকান্তর মিয়ার মেয়ে।

তবে আমপাড়া নিয়ে এ ধরনের বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে বিশ^াস করছেনা স্থানীয়রা। তাদের দাবী, অন্য কোন ঘটনাকে কেন্দ্র করে নাছিমার ওপর হামলা চালানো হয়েছে। তদন্ত করে প্রকৃত বিষয়টি বের করে ব্যবস্থা নিতে আইনশৃংখলা বাহিনীর কাছে জোরদাবী এলাকাবাসীর।

তবে নির্যাতিত ওই নারী নাছিমা আক্তার সদর হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান, তার স্বামী ইটভাটার শ্রমিকের কাজ করে। এ সুবাধে সে বাড়ির বাহিরে রয়েছে। এ কারনে প্রতিবেশী আবদুল প্রায়ই তাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করত। শুক্রবার দুপুর বারোটার দিকে তার কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ঘরে ডুকে আবদুল ও তার সহযোগি আহসান,আহমদ উল্যাহসহ কয়েকজন তাকে বেদম মারধর করে। পরে তার শিশু সন্তান তাদের গাছ থেকে আম পাড়ছে বলে অভিযোগ তুলে। এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। এ ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক উল্লেখ করে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান ওই নির্যাতিত নারী ও তার বৃদ্ধ বাবা সেকান্তর মিয়া।

এ দিকে সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা: আসিফ মাহমুদ জানান, নারীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের গুরুতর চিহৃ রয়েছে। তাকে পর্যবেক্ষনে রাখা হয়েছে। তবে সে শংকামুক্ত কিনা সে বিষয়ে এখনেই বলা যাচ্ছেনা।

রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সোলাইমান হোসেন জানান, ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে। ওই নারীর ১০ বছরের শিশুর আম পাড়া নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে। তবে ইভটিজিং বা উত্ত্যক্ত করার বিষয়টি নিয়েও তদন্ত করা হচ্ছে।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact