আজ সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩০ অপরাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে চারসন্তানসহ মায়ের বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা বসতভিটি বিক্রি না করায় মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্চিত,প্রতিবাদে বিক্ষোভ একাদশ-দ্বাদশের ফল মিলিয়ে এইচএসসির ফলাফল লক্ষ্মীপুরে চারদিন পর দুই সন্তান ও মায়ের খোঁজ মিলেছে লক্ষ্মীপুরে নদী ভাঙ্গন রোধে বাঁধ উদ্বোধন করেছেন এমপি নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন লক্ষ্মীপুরে মেঘনার ভয়াবহ ভাঙ্গনে মাটি চাপা পড়ে নিখোঁজ-১,জীবিত উদ্ধার -৩ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন ঘিরে ‘থ্যাংক ইউ পিএম’ ক্যাম্পেইন ডিসেম্বরের মধ্যে আরো ১০ কোটি মানুষ টিকা পাবেন: স্বাস্থ্য সচিব লক্ষ্মীপুরে টিউবওয়েল বসাতে গিয়ে রশি ছিড়ে শ্রমিকের মৃত্যু লক্ষ্মীপুর জেলা আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে সনদ বিতরন
রায়পুরে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পরিবারকে দোকান ও অর্থ দিলেন জেলা প্রশাসক

রায়পুরে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পরিবারকে দোকান ও অর্থ দিলেন জেলা প্রশাসক

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

রায়পুরের ৫ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী পরিবারকে নগদ সহায়তা ও দোকান ঘর করে দিলেন লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক আনোয়ার হোসাইন আকন্দ। তিনি বুধবার (৫ মে) দুপুরে উপজেলার কেরোয়া ইউনিয়নের লামছরি গ্রামস্থ মাইনুদ্দিন বেপারী বাড়িতে উপস্থিত হয়ে এ সহায়তা প্রদান করেন।

একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ ৫ জন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী কষ্টে জীবনযাপন করছে এমন খবর পেয়ে ছুটে এসেছেন বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। ৩ দিন আগে এ পরিবারকে ৩০ কেজি করে চাল দিয়ে আসেন রায়পুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরীন চৌধুরী। পরিবারটির ৫ সদস্যকে প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ডের ভাতা পাচ্ছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ইউপি সদস্য আরিফুর রহমান।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, হাফেজ মোঃ ইসমাইল (৫৫) একজন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী। তাঁর ৩ ছেলে রহমত উল্যা (৩৫), আয়াত উল্যা (৩০) ও নেয়ামত উল্যা (২০) জন্মগতভাবেই অন্ধ। একই অবস্থা ইসমাইলের বড় বোন আমেনা বেগমের (৬০)। তাঁর মা-বাবাও দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী অবস্থায় মারা যান প্রায় ১৫/১৬ বছর আগে। আয়াত উল্যার ৬ বছরের কন্যা রাবেয়াও জন্মগত দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী।

দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হাফেজ ইসমাইল হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসক ও ইউএনও সাহেবের এ মহানুভবতায় আমরা আপ্লুত। প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে নগদ টাকা সহায়তার জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যার প্রতিও কৃতজ্ঞতা। অন্ধকার জীবনে দোকান ঘরটি আমাদের আশার আলো হিসেবে কাজ করবে।

লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক আনোয়ার হোসাইন আকন্দ বলেন, পরিবারটির দুর্দশার কথা জানতে পেরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে নগদ টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এ পরিবারকে একটি দোকান করে তাতে বিক্রয়ের জন্য মালামাল ক্রয় করে দেওয়া হবে। দোকানটির নির্মাণ কাজ দেখে গেলাম। আশা করি তারা দোকানের আয় থেকে নিজেদের অভাব মেটাতে পারবে।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact