আজ রবিবার, ১৮ Jul ২০২১, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে ১৭দিনে করোনায় মৃত্যু ৭ ,আক্রান্ত ৭৭৭জন লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান আহসান উল্যাহ হিরন গ্রেপ্তার নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে হতে পারে এইচএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী লঞ্চে যাত্রীর চাপ, স্বাস্থ্যবিধি উধাও লক্ষ্মীপুরে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহন লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরন বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন, খুলবে দোকানপাট লক্ষ্মীপুরে ‘খুঁজে খুঁজে সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন সাংবাদিক জয়’ শিরোপা অবশেষে মেসির আর্জেন্টিনার ঠাকুরগাঁওয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক তানুকে গ্রেপ্তার,মুক্তির দাবী
বিয়ের পিঁড়ীতে বসা হলোনা সালাউদ্দিনের,লক্ষ্মীপুরে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম

বিয়ের পিঁড়ীতে বসা হলোনা সালাউদ্দিনের,লক্ষ্মীপুরে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিয়ের পিড়ীঁতে বসা হলো না চট্রগ্রামে মাদক কারবারীদের গাড়ি চাপায় নিহত পুলিশ কর্মকর্তা কাজী সালাউদ্দিনের। ছুটি নিয়ে এসে বিয়ে করার কথা ছিল তার। কিন্তু সালাউদ্দিন ঠিকই এসেছেন বাড়িতে,তবে লাশ হয়ে। তার এমন মৃত্যু কোনভাবে মেনে নিতে পারছেনা পরিবারসহ এলাকাবাসী। লক্ষ্মীপুরে গ্রামের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। একমাত্র উপার্জন শীল ব্যাক্তিকে হারিয়ে পাগল নিহতের পরিবারের সবাই। সুষ্ঠ তদন্ত করে বিচারের দাবী করেন স্বজনরা।

এলাকাবাসী জানায়, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দক্ষিন জয়পুর এলাকার হতদরিদ্র কাজী নাদরেরজ্জামানের ছেলে কাজী সালাউদ্দিন ২০০৯ সালে পুলিশ কনস্টেবল পদে যোগদেন। সম্প্রতি বিভাগীয় পরীক্ষায় উত্তীর্ন হয়ে পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক হিসেবে পদন্নোতি পান তিনি। সালাউদ্দিন ছিলেন চার-ভাই বোনদের মধ্যে সবার বড়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল ব্যাক্তি। বৃদ্ধা বাবা-মাসহ সবাইকে নিয়ে ভালোই চলছে তাদের সুখের সংসার। স্বপ্ন ছিল ছেলে সালাউদ্দিন অনেক বড় অফিসার হবে।

নিহত সালাউদ্দিনের বাবা নাদেরেজ্জামান ও মা ছালেহা বেগম কান্নাকন্ঠে জানান, বিয়ে জন্য মেয়েও ঠিক করে রেখেছেন বাবা-মা। ছুটি নিয়ে বাড়ি আসলে জাঁক জমকভাবে বিয়ের আয়োজন করা হবে। কিন্তু বিয়ে আর হলো না। সব স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে। শুক্রবার ভোর চারটার দিকে চট্রগ্রামে নগরের চান্দগাঁও থানার মেহেরাজ খান ঘাটা এলাকায় ডিউটিরত অবস্থায় মাদক কারবারীদের গাড়ির চাপায় নিহত হন কাজী সালাহউদ্দীন। এসব কথা বলে বারবার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন বৃদ্ধা বাবা নাদেরেরজ্জামান ও মা ছালেহা বেগম। কিভাবে সন্তানদের নিয়ে চলবে তার সংসার। ছেলেকে হারিয়ে এখন দিশাহারা। জড়িতের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন তারা।

এলাকায় সালাউদ্দিন ছিলেন ভদ্রনম্্র স্বভাবের মানুষ। কিন্তু এইভাবে সে চলে যাবে। কেউ বিশ^াস করতে পারছেনা। একমাত্র উপার্জন ব্যাক্তি ভাইকে হারিয়ে বাবা-মার মতো কলেজ পড়–য়া ছোট ভাই কাজী আলাউদ্দিন ও বোন আখী বেগমও বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন। ভাই হত্যার বিচার চেয়ে বারবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তারা। কিভাব্ েচলবে সংসার। কে ধরবে সংসারের হাল। কিভাবে চলবে তাদের পড়ালেখা। এ নিয়ে দু:চিন্তায় তাদের চোখে মুখে। জড়িতদের চিহিৃত করে বিচার চেয়েছেন ছোটভাই কাজী আলাউদ্দিন ও বোন আখীঁ বেগম।

স্থানীয় এলাকাবাসী রফিকুল ইসলামসহ অনেকেই জানান, সালাউদ্দিন ছিল একজন ভালো মানুষ। কি অপরাধ ছিল সালাউদিনের। তার ওপর যে দায়িত্ব ছিল। শুধুমাত্র সরকারী দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মাদক কারবারীদের হাতে প্রাণ দিতে হলো তাকে। যদি দ্রুত সময়ে সালাউদ্দিনের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার না হয়,তাহলে এইভাবে মাদক কারবারীদের অপরাধ আর বাড়বে। তাই সালাউদ্দিনের মত আর কোন পরিবারের যেন বুক খালি না হয় সে আশা করেন স্থানীয়রা। এ ঘটনার দৃষ্টান্তুমূলক শাস্তির দাবী জানান। পাশাপাশি সালাউদ্দিনের পরিবারের পাশে সরকারকে এগিয়ে আসার আহবান তারা।

এদিকে লক্ষ্মীপুরে অতিরিক পুলিশ সুপার(প্রশাসন) পলাশ কান্তি নাথ বলেছেন,, মাদক কারবারীদের হাতে এভাবে পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু হবে। এটি কল্পনা করা যায়না। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে। কোনভাবে চাড় পাবেনা অপরাধীরা। এছাড়া নিহত সালাউদ্দিনের পরিবারকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ^াস দেন পুলিশ কর্মকর্তা।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact