আজ সোমবার, ১৯ Jul ২০২১, ০৯:৩৩ অপরাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে ১৭দিনে করোনায় মৃত্যু ৭ ,আক্রান্ত ৭৭৭জন লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান আহসান উল্যাহ হিরন গ্রেপ্তার নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে হতে পারে এইচএসসি পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী লঞ্চে যাত্রীর চাপ, স্বাস্থ্যবিধি উধাও লক্ষ্মীপুরে ৬ ইউপি চেয়ারম্যানের শপথ গ্রহন লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাঝে অক্সিজেন সিলিন্ডার বিতরন বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন, খুলবে দোকানপাট লক্ষ্মীপুরে ‘খুঁজে খুঁজে সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন সাংবাদিক জয়’ শিরোপা অবশেষে মেসির আর্জেন্টিনার ঠাকুরগাঁওয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক তানুকে গ্রেপ্তার,মুক্তির দাবী
লক্ষ্মীপুরে জেলেকে পিটিয়ে হত্যা, জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচার চেয়ে পরিবারের আকুতি

লক্ষ্মীপুরে জেলেকে পিটিয়ে হত্যা, জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচার চেয়ে পরিবারের আকুতি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরে পশ্চিম চররমনী মোহন এলাকায় জেলে আবদুস শহিদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহতের স্ত্রী কুলছুম বেগম ও তার সন্তানরা। রবিবার দুপুরে স্থানীয় একটি পত্রিকা কার্যালয়ে সুষ্ঠু বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

নিহতের স্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, শ^শুরবাড়ি থেকে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। ওই এলাকার খাল পাড়ে সে পৌঁছলে আবদুল হক লাড়ীর ঘরে চুরির অভিযোগে আবদুস শহিদকে আটক করে গনধোলাই দেয় চেয়ারম্যান ও তার অনুসারীরা স্থানীয়রা। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় খাল পাড়ে মৃত ভেবে ফেলে যায় তারা। এ ঘটনায় চররমনী মোহন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা আবু ইউসুফ ছৈয়াল ও তার ছেলে আবু সুফিয়ানসহ ১৩জনের নাম উল্লেখ করে আরো ১৫জনকে অজ্ঞাত আসামী করে মামলা করেন। এরপরও পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেপ্তার করেনি বলে অভিযোগ করেন তিনি। দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবীও জানান নিহতের স্ত্রী

তিনি আরো বলেন, আমার স্বামী নদীতে মাছ শিকার করতো এবং কৃষি কাজ করে সংসার চালাতো। গিয়াস উদ্দিন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ভাজিতা বাবুল ছৈয়াল সাথে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। তারা আমাদের ১৬শ তাংশ জমি বার বার দখল করার চেষ্টা করেছে। এ নিয়ে আদালতে মামলাও রয়েছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধেই তারা পরিকল্পিতভাবে আমার স্বামীকে হত্যা করেছে। আমি আমার স্বামীর হত্যায় জড়িতদের শাস্তি চাই।
এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পর আসামীরা বাদী হুমকিÑধামকি দিচ্ছে অভিযোগ করেন তিনি। নিহত শহীদ চর রমনী মোহন ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মৃত আবুল হাসেশের ছেলে। তার স্ত্রী ও ৪ ছেলে রয়েছে।

তবে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল অভিযোগ করে বলেন, আবদুস শহিদ এলাকার চিহিৃত চোর। ওইদিন চুরি করতে গিয়ে গনধোলাই দেয় স্থানীয়রা। কিন্তু শহিদের স্ত্রীকে দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ এনে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। রাজনৈতিক ও সামাজিক ভাবে আমাকে হেয় প্রতিপর্ণূ করতে এ মামলা দেয়া হয়। সামনে ইউপি নির্বাচন,এ কারনে আমার প্রতিপক্ষে ষড়যন্ত্র করে পরিকল্পিতভাবে এটি সাজিয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করার দাবী জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ১৪ জুন সোমবার রাত ১০টার দিকে শ^শুরবাড়ি থেকে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। ওই এলাকার খাল পাড়ে সে পৌঁছলে আবদুল হক লাড়ীর ঘরে চুরির অভিযোগে আবদুস শহিদকে আটক করে গনধোলাই দেয় স্থানীয়রা। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় খালপাড়ে মৃতভেবে ফেলে যায়। এরপর সে বাড়িতে না যাওয়ায় খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে পরেরদিন সকালে সুপারী বাগানে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পরিবার। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করার পর বুধবার বিকেলে মারা যায় আবদু শহিদ।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact