আজ বৃহস্পতিবার, ২২ Jul ২০২১, ০৬:২০ পূর্বাহ্ন

Logo
ঠাকুরগাঁওয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক তানুকে গ্রেপ্তার,মুক্তির দাবী

ঠাকুরগাঁওয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক তানুকে গ্রেপ্তার,মুক্তির দাবী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঠাকুরগাঁওয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় সাংবাদিক তানভির হাসান তানুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর থানা হাজতে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার রাত একটার দিকে তানুর শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। পরে তাকে হাসপাতালে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তানভীরুল ইসলাম।
সাংবাদিক তানুর পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ৫ই জুলাই তিনি করোনা থেকে সুস্থ হন। তবে এখনও তিনি শারীরিক অসুস্থতা অনুভব করছেন। তাকে নিয়মিত ওষুধ খাওয়ানো হচ্ছে।
ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তানভীরুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিক তানু হঠাৎ শারীরিক অসুস্থতা অনুভব করেন। দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা বিষয়টি আমাকে জানালে আমি তাকে হাসপাতালে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিই।
উল্লেখ্য, গত ৬ ও ৭ জুলাই জাগোনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম, বাংলাদেশ প্রতিদিনসহ বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল ও দৈনিকে ‘ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে করোনা রোগীকে ৩০০ টাকার পরিবর্তে ৭০ টাকার খাবার দেওয়া হয়’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রচার হয়। এ সংবাদ প্রচারের পরই হাসপাতালের পরিচালক সদর থানায় আইসিটি আইনে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় শনিবার সন্ধ্যায় তানুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এদিকে সাংবাদিক তানভীর হাসান তানুকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় ঢাকার কোর্ট রিপোর্টার্স ইউনিটি (সিআরইউ) তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। একইসঙ্গে মামলা প্রত্যাহার ও তানুর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। রোববার কোর্ট রিপোর্টার্স ইউনিটির (সিআরইউ) দফতর সম্পাদক মাসুদ রানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির সভাপতি হাসিব বিন শহিদ ও সাধারণ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম এ ঘটনার নিন্দা জানান।
বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মাধ্যমে স্বাধীন সাংবাদিকতাকে বাকরুদ্ধ করতে চায় একটি গোষ্ঠী। তাই প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে ও ব্যক্তি স্বার্থে এ আইনের চরম অপব্যবহার হচ্ছে। এই কালো আইন বাতিল করে স্বাধীন সাংবাদিকতার পথ সুগম করার জন্য সরকারের নিকট দাবি জানাচ্ছি। একইসঙ্গে ঠাকুরগাঁওয়ে জাগোনিউজ২৪.কমের প্রতিনিধি তানভীর হাসান তানুর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলা প্রত্যাহার ও তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি জানাচ্ছি।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact