আজ রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:৫১ অপরাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
কৃষকদের কাছ থেকে ২৭ টাকা কেজিতে লক্ষ্মীপুরে ধান সংগ্রহ শুরু লক্ষ্মীপুরে ছাত্রী হত্যায় ৪ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড লক্ষ্মীপুরে পিকআপের চাপায় অটোরিকসা চালক নিহত কেমিস্টস এন্ড ড্রাগিস্টস সমিতির নবনির্বাচিত কমিটিকে জেলা কমিটির ফুলেল শুভেচ্ছা লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতা এ্যানির বক্তব্যের প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে আ. লীগ বিচার দাবী লক্ষ্মীপুরে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার উদ্যোগ, অ্যাপসভিত্তিক অনলাইন কার্যক্রম চালু লক্ষ্মীপুরে ইটভাটার শ্রমিকের লাশ উদ্ধার নিঝুমদ্বীপে পুকুরে মিলল ৫০টি ‘ইলিশ’ নোয়াখালীতে জেলা ছাত্রলীগসহ ৭ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা ঢাকা থেকে নয়, বিএনপির আন্দোলন হবে লক্ষ্মীপুর থেকে – এ্যানি
লক্ষ্মীপুরে সে শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা, হচ্ছেন বরখাস্ত!

লক্ষ্মীপুরে সে শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা, হচ্ছেন বরখাস্ত!

নিজস্ব প্রতিবেদক,লক্ষ্মীপুর:
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪জন ছাত্রের মাথার চুল কাঁচি দিয়ে কেটে লাঞ্ছিত ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই লক্ষ্মীপুরে আলিম মাদরাসার দশ শ্রেণীর ৭ ছাত্রের চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে শিশু নির্যাতন ২০১৩ আইনে মামলা করেছে ছাত্র শাহাদাত হোসেনর মা সাহেদা বেগম। রায়পুর থানায় বাদী হয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরকে আসামী করে এ মামলা দায়ের করেন তিনি। এদিকে বিষয়টি নিয়ে শনিবার সকালে মাদ্রাসার সম্মেলন কক্ষে শিক্ষকদের নিয়ে সভা করেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা বালাগাত উল্যাহ। তবে সাময়িকভাবে মাদ্রাসা থেকে বহিস্কার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অধ্যক্ষ।

লক্ষ্মীপুরে রায়পুরে কাজিরদিঘীরপাড় আলিম মাদরাসার শিক্ষক ও ইউনিয়ন জামায়াত নেতা মঞ্জুরুল কবির প্রতিদিনের মতো বুধবার শ্রেণিকক্ষে পাঠ্য কার্যক্রমে অংশ নেয়। একপর্যায়ে শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির দাখিলের ৭ ছাত্রকে দাঁড় করিয়ে শ্রেণি কক্ষের সামনের বারান্দা আসতে বলেন। এসময় তিনি উত্তেজিত হয়ে সারিবদ্ধভাবে দাঁড় করিয়ে একটি কেচি এনে একে-একে সবার মাথার টুপি সরিয়ে সামনের অংশের চুল এলোমেলোভাবে কেটে দেয়। পরে তারা লজ্জায় ক্লাস না করেই বেড়িয়ে যায়।

এ ঘটনার ১ মিনিট ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও শুক্রবার (৮ অক্টোবর) সকাল থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে দেখা যায়। ভিডিওতে কয়েকজন ছাত্রকে কান্না করতে দেখা গেছে। ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তোলপাড় শুরু হয় জেলাজুড়ে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নানা আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় মাদরাসা শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির মঞ্জুকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার বামনী ইউনিয়নের কাজিরদিঘীরপাড় এলাকা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটক মঞ্জু হামছাদী কাজিরদিঘীরপাড় আলিম মাদরাসার সহকারী শিক্ষক ও বামনী ইউনিয়ন জামায়াতের আমির। এরপর রায়পুর থানায় শিশু আইন ২০১৩ অনুযায়ী মামলা দায়ের করেন ছাত্র শাহদাত হোসেনের মা সাহেদা বেগম। পরে পুলিশ এ মামলায় আটকৃকত শিক্ষককে গ্রেপ্তার দেখায়।

এদিকে একটি সূত্রে জানায়, এর আগে নাশকতার একাধিক মামলায় জেল খেটেছেন অভিযুক্ত শিক্ষক মঞ্জুরুল কবির। এসব কারনে আগেও মাদ্রাসা থেকে সাময়িক বরখাস্ত হন। পরে আবারও চাকুরীতে বহাল হন তিনি।

মাদ্রাসা সমিতির নেতা আলমগীর হোসেন ও নিজমা উদ্দিন এ ঘটনরার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে মুক্তি দিতে প্রশাসনের নিকট দাবী জানান শিক্ষক নেতারা। তারা জানান, নৈতিক শিক্ষা ও শিক্ষার্থীদের শাসন করতে ৭ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেয়া হয়েছে। কিন্তু চুল কাটা ঠিক হয়নি। এটি কোনভাবে কাম্য নয়। তারপরও শিক্ষক হিসেবে তাকে ছাড় দিতে অনুরোধ করেন তারা। পাশাপাশি ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে প্রকত বিষয়টি উদঘাটন করার দাবী জানান।

মামলার বাদীর মেয়ে কাজল বেগম মামলার বিষয়টিা নিশ্চিত করে জানান, অন্যায়ভাবে তার ছ্টো ভাই শাহাদাত হোসেনের চুল কেটে দেয়া হয়েছে। তবে এটি ভূল বুজাবুজির কারনে হয়েছে বলে দাবী করেন তিনি।

অভিযুক্ত শিক্ষক মঞ্জুরুল কবিরের স্বজনদের দাবী, পরিকল্পিতভাবে ও রাজনীতি প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্রের শিকার ি মঞ্জুরুল কবির। সামনে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার কথা রয়েছে। এ কারনে তাকে ফাসাঁনেবা হয়েছে। তার মুক্তির দাবী জানান স্বজনরা।

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মো. বালাগাত উল্যাহ জানান, কেউ আইনের উর্দ্বে নয়। আইন আইনের গতিতে চলবে। অন্যায় করলে শাস্তি পেতেই হবে। এ ঘটনায় শিক্ষকদের নিয়ে সভা করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। বিধি মোতাবেক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তাকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) পলাশ কান্তি নাথ বলেন, উক্ত ঘটনায় এক ছাত্রের মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক জামায়াতের রাজনীতির সাথেও জড়িত রয়েছেন।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact