আজ সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নিহত ভোটকেন্দ্রে পুলিশকে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি লক্ষ্মীপুরে দুই প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ,আহত,৬,গাড়ি ভাংচুর, ৩৯জন অস্ত্রসহ আটক লক্ষ্মীপুরে নারী দিয়ে ব্যাল্কমেলিং করে চাঁদাবাজি,এক যুবক গ্রেপ্তার দল-মত নির্বিশেষে সমন্বিতভাবে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান প্রেসিডেন্টের লক্ষ্মীপুরে ১৫টি ইউপিতে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন যারা লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির স্মারকলিপি প্রদান যাত্রী সেজে লক্ষ্মীপুরে অটোরিকশা চালককে হত্যার অভিযোগ বাবার বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মেয়েকে অপহরণ, গ্রেপ্তার-৫, রিমান্ডের আবেদন লক্ষ্মীপুরে ট্রাকে কেড়ে নিল দুই শিক্ষাথীর প্রাণ,প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ
উৎসবমুখর পরিবেশে লক্ষ্মীপুরে ৪টি ইউপিতে ভোট শেষ

উৎসবমুখর পরিবেশে লক্ষ্মীপুরে ৪টি ইউপিতে ভোট শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
লক্ষ্মীপুরে রামগতি এবং কমলনগর উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শান্তিপর্ণূভাবে শেষ হয়েছে। ভোটের শুরুতে প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন আর আইনশৃংখলা বাহিনীর কঠোর অবস্থানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয় ভোট। কেন্দ্রে আইনশৃংখলা বাহিনীর পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট,বিজিবি ও র‌্যাবের টহল ছিল চোখে পড়ার মত। এর আগে ভোর শুরুর আগে রামগতির পূর্বচরগাজী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের বাহিরে আজাদ উদ্দিন নামে এক ব্যাক্তি গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ আজাদ উদ্দিনকে উদ্ধার করে প্রথমে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্র পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে দলীয় ও অভ্যান্তরিন কোন্দলে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারনা করছে পুলিশ।

এছাড়া ছোটখাট দুই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে সাধারন মানুষ ভোট দিতে পারছে বলে জানিয়েছেন ভোটারা। অপরদিকে কোনকোন কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করে জাল ভোট দেয়ার চেষ্টাকালে দুই যুবককে আটক করে পুলিশ। কমলনগর উপজেলার চরকাদিরা, চরমার্টিন, চরলরেন্স ও রামগতির চরগাজী এই ৪টি ইউনিয়নে দ্বিতীয় দাপে ভোট হয়। এসব ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ ও পুলিশ সুপার ড.এএইচএম কামরুজ্জামান। এসময় তাদের সাথে ছিলেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার,স্ব-স্ব থানার অফিসার ইনচার্জসহ কর্মকর্তারা।

সরেজমিনে কয়েকটি ভোট কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে নারী ও পুরুষ ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে নিজের প্রচন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে দাড়িয়েছে। এছাড়া ছেলের কোলে ছড়ে বৃদ্ধ বাবাও ভোট দিতে আসছে কেন্দ্রে। এসময় বেশ কয়েকজন ভোটার জানান, গোপন কক্ষে নিজের প্রচন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পেরে খুশি। গত কয়েক বছরেও এইভাবে ভোট দিতে পারেনি বলে অভিযোগ করেন তারা। বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রে প্রশাসনের নজরদারী ছিল চোখে পড়ার মতো। ভোটে যে নির্বাচিত হোক না কেন, নিজের প্রার্থীকে ভোট দেয়ায় অনেক আনন্দের। এচিত্র যদি সামনের দিনে ভোটে থাকে,তাহলে মানুষ যোগ্য প্রার্থীকে বিজয়ী করতে পারবে আশা তাদের।

পুলিশ সুপার ড. এএইচ এম কামরুজ্জামান ও জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের জানান, অবাধ ও শান্তিপূর্নভাবে ভোট করাই চ্যালেঞ্জ ছিল প্রশাসনের। সে অনুযায়ী ব্যবস্থাও নেয়া হয়েছে। কোথাও কোন ধররনে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সাধারন ভোটার সবাই নিভিগ্নে ও নিরাপদে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পেরেছে।

প্রতিটি কেন্দ্রে আইনশৃংখলা বাহিনী ও নির্বাহী ম্যাজিস্টেটরা নিয়োজিত দায়িত্ব পালন করেছে। সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট শেষ করতে পারায় অনেক ভালো লেগেছে। ভোটের আগে প্রার্থী ও ভোটারদের যে আশ^াস দেয়া হয়েছে,সেটাই প্রমান হয়েছে বলে দাবী করেন এ দুই কর্মকর্তা।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact