আজ বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:০০ পূর্বাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে নির্বাচনী সহিংসতায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নিহত ভোটকেন্দ্রে পুলিশকে টাকা দিতে মেয়রের জোরাজুরি লক্ষ্মীপুরে দুই প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ,আহত,৬,গাড়ি ভাংচুর, ৩৯জন অস্ত্রসহ আটক লক্ষ্মীপুরে নারী দিয়ে ব্যাল্কমেলিং করে চাঁদাবাজি,এক যুবক গ্রেপ্তার দল-মত নির্বিশেষে সমন্বিতভাবে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান প্রেসিডেন্টের লক্ষ্মীপুরে ১৫টি ইউপিতে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন যারা লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির স্মারকলিপি প্রদান যাত্রী সেজে লক্ষ্মীপুরে অটোরিকশা চালককে হত্যার অভিযোগ বাবার বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মেয়েকে অপহরণ, গ্রেপ্তার-৫, রিমান্ডের আবেদন লক্ষ্মীপুরে ট্রাকে কেড়ে নিল দুই শিক্ষাথীর প্রাণ,প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ
লক্ষ্মীপুরে ট্রাকে কেড়ে নিল দুই শিক্ষাথীর প্রাণ,প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

লক্ষ্মীপুরে ট্রাকে কেড়ে নিল দুই শিক্ষাথীর প্রাণ,প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
লক্ষ¥ীপুরে ট্রাকে কেড়ে নিল দুই শিক্ষার্থীর প্রাণ। নিহত শিক্ষার্থীরা হচ্ছেন, লক্ষ্মীপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর সানজিদা আক্তার ইভা ও সেগুন বাগিচা রহিমা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী ফাহমিদা আক্তার। শনিবার সকাল ১০টার দিকে লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ সড়কের পালেরহাট এলাকায় এদূর্ঘটনা ঘটে। ঘটনার প্রতিবাদে ঘন্টব্যাপী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সড়ক থেকে অবরোধ তুলে দেয়। নিহত দুই শিক্ষার্থী সম্পর্কে মামাতো ও ফুফাতো বোন। এদিকে ট্রাক চালক মহিউদ্দিনকে আটক করে পুলিশ। ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করা হয়।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দুই শিক্ষার্থীকে নিয়ে সকালে লক্ষ্মীপুরে বাসা থেকে মোটরসাইকেল করে কেরোয়ায় নানা বাড়ির উদ্দেশ্য বের হন সানজিদা আক্তারের বাবা আরিফ হোসেন। মোটরসাইকেলটি লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ সড়কের পালেরহাট এলাকায় পৌঁছলে দ্রুত গতিতে ছেড়ে আসা মালবাহী ট্রাকের ধাক্কায় দুই শিক্ষার্থী ঘটনাস্থলে চাপায় পড়ে নিহত হন। এসময় মোটরসাইকেল আরোহী সানজিদা আক্তারের বাবা আরিফ হোসেনও আহত হন। পরে বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ সড়কের গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এক পর্যায়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সড়ক অবরোধ তুলে দিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহত দুই শিক্ষার্থীর স্বজন শরীফুল ইসলাম ও ইফতেখায়রুল ইসলাম জানান, গত কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে মামা আরিফ হোসেনের বাসায় বেড়াতে আসে ৯ শ্রেনীর শিক্ষার্থী ফাহিমা আক্তার। সকালে নানার বাড়িতে মামাতো বোন সানজিদা আক্তারকে নিয়ে মামার মোটরসাইকেল করে যাচ্ছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল নানার বাড়িতে যাওয়া। ঠিকই তারা গেছে, তবে জীবিত নয়,লাশ হয়ে। এসব কথা বলে বারবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন স্বজনরা।

এদিকে স্থানীয় এলাকাবাসী মামুন,সবুজ হোসেন ও নোমানসহ অনেকেই জানান, প্রায়ই এ সড়কে দূর্ঘটনা ঘটলেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না প্রশাসন। দ্রুতগতি ও নিয়ন্ত্রনভাবে গাড়ি চালানোর কারনে এ দূর্ঘটনা। এছাড়া যে ট্রাকটি দুই শিক্ষার্থীকে ধাক্কায় দিয়ে প্রাণ কেড়ে নিল,সেটাও এক পুলিশ কর্মকর্তার। তাই ব্যবস্থা নিতে ও ট্রাকটি জব্দ করতে অনেক সময় লাগছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা। ট্রাক চালককে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী জানান স্থানীয়রা।

ট্রাকের ধাক্কায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে ট্রাফিক পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. ফারুক হোসেন জানান, নিহত দুই শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে এসে সড়ক অবরোধ তুলে দিয়ে যানচলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

সদর থানার ওসি মো. জসিম উদ্দিন জানান, ঘাতক ট্রাকটি জব্দ ও চালক মহিউদ্দিনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুুতি চলছে। লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাটি অত্যন্তদূ:খজনবক বলেও মন্তব্য করেন ওসি। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact