আজ সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৩৭ অপরাহ্ন

Logo
সংবাদ শিরোনাম:
লক্ষ্মীপুরে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স, সেবা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ

লক্ষ্মীপুরে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স, সেবা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি. সাধারন মানুষের দুর্ভোগ কমাতে ও জনগনের দৌড়গড়ায় স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পৌঁছে দিতে ব্যাতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। অসহায়,দু:স্ত প্রতিবন্ধিসহ সব পেশার মানুষকে সেবা দিতে প্রতিটি গ্রাম-গঞ্জে যাচ্ছে স্বপ্নযাত্রা’ নামে এম্বুলেন্স সার্ভিস। এতে করে সাধারন মানুষ সহজে সেবা নিতে পারবে। কমবে দুর্ভোগসহ নানা হয়রানী। প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারন মানুষ।
জেলা প্রশাসক কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, “আমার গ্রাম, আমার শহর” প্রধানমন্ত্রীর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে লক্ষ্মীপুরে গ্রামীণ পর্যায়ে সাধারণ মানুষের দৌরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস সেবা কার্যক্রম চালু করা হয়। স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে একটি এম্বুলেন্স দিয়ে শুরু করা হয় এ কার্যক্রম। এখন জেলার ৫৮টি ইউনিয়ন পর্যায়ে ১০টি এ্যাম্বুলেন্স দিয়ে সেবা কার্যক্রম চলছে।

 

জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের নিজস্ব তহবিল থেকে কেনা হয়েছে এই এম্বুলেন্সগুলো। ২৪ ঘন্টায় সদরসহ জেলার ৫টি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাবে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস নামে এসব গাড়ি। গুগল প্লে ষ্টোর থেকে স্বপ্নযাত্রা নামের একটি অ্যাপস ডাউনলোড করে এই সেবার বিস্তারিত তথ্য জানা ও সেবা পাওয়া যাবে। অনলাইন অ্যাপসে কল করলে মুমুর্ষ রোগীদের যথাসময়ে চিকিৎসা কেন্দ্রে পৌঁছানোসহ স্বাস্থ্য সহায়তা সেবা দিচ্ছে এই এম্বুলেন্সগুলো।
এই বিষয়ে সদর হাসপাতালের সামনে ২২ মে সকালে কথা হয়, সদর উপজেলার হামছাদীর আয়েশা বেগমের সাথে। তিনি জানান, হঠ্যাৎ বাসায় আসুস্থ্য হয়ে পড়েন তিনি। হাসপাতালে নিতে বিভিন্ন স্থানে এম্বুলেন্স খোঁজে না পেয়ে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস সেবা কার্যক্রমে কল দেন স্বজনরা। স্বল্প খরচে অল্প সময়ে বাড়িতে পৌঁছে যায় ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস। সাথে সাথে পৌঁছেনো হয় হাসপাতালে। কয়েকদিন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাসায় ফিরেন তিনি। আয়েশা বেগমের মতো জেলার ৫৮টি ইউনিয়নে এ সেবা কার্যক্রম পাচ্ছেন হতদরিদ্র,অসহায়,দু:স্ত,প্রতিবন্ধিসহ সব পেশার হাজারো মানুষ।

এ সেবা সেবা এখন সাধারন মানুষের নাগালের ভিতরে। কম খরচে দ্রুত অসুস্থ্য হলে হাসপাতালে প্রেরণ, সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে এলাকায়, মৃত ব্যাক্তির মরদেহ পরিবহনের জন্য এই সেবা পাবে প্রত্যন্ত অঞ্চলের সব পেশার মানুষ।

উত্তর হামছাদীর নাজমুল করিম টিপু বলেন, প্রতি কিলোমিটার রোগীদের কাছ থেকে এসি গাড়ি ২০ টাকা হারে নেয়া হচ্ছে। যেখানে প্রাইভেট এম্বুলেন্স করে ভাড়া দিতে হয় ৩/৪ হাজার টাকা। সেখানে এ সার্ভিসের মাধ্যমে নেয়া হচ্ছে ৫/৭ শ টাকা। প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে শুরু করে,হাট-বাজারসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে পাওয়া যাচ্ছে এই সেবা কার্যক্রম। সহজে এ সেবা কার্যক্রম পেয়ে খুশি তারা। জেলা প্রশাসনের এ ব্যাতিক্রমী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন জেলাবাসী। সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সালাউদ্দিন টিপু বলেন, কম করচে ও সঠিক সময়ে এ সেবা পেয়ে খুশি সাধারন মানুষ। এ সেবা কার্যক্রম জেলাজুড়ো ব্যাপক সাড়া মিলেছে। প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি। তার দাবী, এ ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস এর মাধ্যমে সমাজের খেটে খাওয়া মানুষগুলো স্বাস্থ্যসেবা নিতে সহজ হবে বলে আশা করেন। এটি একটি ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ। সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়ার দাবী করেন তারা।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন বলেন“আমার গ্রাম, আমার শহর” প্রধানমন্ত্রীর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে লক্ষ্মীপুরে গ্রামীণ পর্যায়ে সাধারণ মানুষের দৌরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে জেলার প্রতিটি ইউনিয়নে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস চালু করা হয়েছে। সরকারী অনুদানে নয়, জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের নিজস্ব অর্থায়নে চলছে এ কার্যক্রম।


জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ বলেন, “আমার গ্রাম, আমার শহর” প্রধানমন্ত্রীর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে লক্ষ্মীপুরে গ্রামীণ পর্যায়ে সাধারণ মানুষের দৌরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ‘স্বপ্নযাত্রা’ এম্বুলেন্স সার্ভিস সেবা কার্যক্রম চালু করা হয়। এটি ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। সারাদেশে এ কার্যক্রম ছড়িয়ে দিতে পারলে কমবে মৃত্যুর হার। সে জন্য এমন উদ্যোগ। এটি অব্যাহত রাখার ঘোষনা দেন জেলা প্রশাসক। পাশাপাশি এ কার্যক্রমে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান করেন জেলা প্রশাসক।


© স্বত্ব ২০২০ | About-US | Privacy-PolicyContact